• ১৬ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৩রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ৭ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

ইডেন গার্ডেন কলেজে শিক্ষার্থীদের জিম্মি করে টাকা আদায়

bijoy71news
প্রকাশিত অক্টোবর ১৩, ২০১৫

40590সিলেট নগরীর ধোপাদিঘীরপাড়স্থ ইডেন গার্ডেন স্কুল এন্ড কলেজ থেকে এইচ.এস.সি (অনিয়মিত) পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে বেআইনীভাবে টাকা আদায় করছে। টাকা না দিলে পরীক্ষার্থীদের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় অংশ গ্রহণের সুযোগ হাতছাড়া হবে- এমন ভয় দেখিয়ে টাকা আদায় করা হচ্ছে বলে কলেজের শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেছেন।
সিলেট শিক্ষা বোর্ড কর্তৃপক্ষ বিষয়টিকে বেআইনি বললেও কলেজ প্রিন্সিপাল এটিকে বৈধ দাবি করেছেন। তার দাবি এরকম টাকা আদায় না করলে কলেজ পরিচালনা করা অসম্ভব।
প্রতিষ্ঠানটির একাধিক অনিয়মিত পরীক্ষার্থী সিলেটভিউ২৪ডটকমের কাছে কলেজ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অবৈধভাবে অর্থ আদায়ের অভিযোগ করেছেন।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শিক্ষার্থীরা বলেন- কলেজ কর্তৃপক্ষ নিয়ম বহির্ভূতভাবে বোর্ডে নাম তালিকাভুক্তির কথা বলে তাদের কাছ থেকে হাজার হাজার টাকা আদায় করছেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সিলেটভিউ২৪ডটকমের কাছে একাধিক শিক্ষার্থী কলেজের এরকম অনিয়ম তুলে ধরেন।
যেসব শিক্ষার্থী  ইডেন গার্ডেন স্কুল এন্ড কলেজের বেঁধে দেওয়া সময়ের মধ্যে টাকা প্রদান করতে পারছেন না, কর্তৃপক্ষ তাদের সাথে দুর্ব্যবহার করছেন বলেও অভিযোগ করেন একাধিক ছাত্র।
চলতি অক্টোবর মাসের প্রথম থেকে ক্রমানুসারে কলেজ অফিস থেকে অনিয়মিত ১৮ জন শিক্ষার্থীদের মোবাইল ফোন নাম্বারে যোগাযোগ করা হয়। ফোনে জানানো হয় বোর্ডে অনিয়মিত পরীক্ষার্থীদের নাম অন্তর্ভুক্ত করার জন্য টাকা জমা দিতে হবে। যারা টাকা দিতে পারবেনা তারা ২০১৬ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে না। টাকা প্রদানের শেষ দিন ১০ অক্টোবর বেঁধে দেয়া হয়।

যারা এক বিষয়ে পরীক্ষায় অংশ নেবে তাদেরকে দিতে হচ্ছে ২ হাজার টাকা, ২ বিষয়ের জন্য ৩ হাজার টাকা আর সকল বিষয়ের জন্য ৫ হাজার টাকা করে দিতে হচ্ছে কলেজ কর্তৃপক্ষকে।

বেশিরভাগ শিক্ষার্থী তাদের ভবিষ্যত জীবনের কথা চিন্তা করে ইতিমধ্যে কলেজ অফিসে টাকাও জমা দিয়েছেন। কয়েকজন সময়মতো টাকা দিতে পারেননি। যারা জমা দেননি তাদের কাছ থেকে আরো ২০০ টাকা করে বিলম্ব ফি আদায় করছে কলেজ অফিস।

ইডেন গার্ডেন স্কুল এন্ড কলেজের প্রিন্সিপাল আ ন ম এহিয়া সিলেটভিউ২৪ডটকমকে বলেন, বোর্ডের নীতিমালা অনুসারেই এই টাকা আদায় করা হচ্ছে। এরকম টাকা না নিলে কলেজ পরিচালনা করা সম্ভব নয়। সিলেটের সকল বেসরকারি কলেজ এরকম ফি নিচ্ছে। এটি বেআইনী নয় বলে তিনি দাবি করেন।

সিলেট শিক্ষা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক মোস্তফা কামাল সিলেটভিউ২৪ডটকমকে বলেন, শিক্ষা বোর্ড শুধুমাত্র রেজিস্ট্রেশনকালীন ও টেস্ট পরীক্ষার পর ফরম পূরণ বাবত একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা নেয়। বোর্ডে নাম তালিকাভুক্তির কথা বলে কোন কলেজের টাকা আদায় করা সম্পূর্ণ আইন বহির্ভূত। যেসব কলেজ থেকে এইরকম টাকা আদায় করা হচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে যদি ছাত্র-ছাত্রী, অভিভাবকরা লিখিত অভিযোগ করেন তবে বোর্ড কর্তৃপক্ষ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

এদিকে প্রথম দফা ফোনালাপের প্রায় দেড় ঘন্টা পর মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ইডেন গার্ডেন স্কুল এন্ড কলেজের প্রিন্সিপাল আ ন ম এহিয়া ফের ফোন করেন সিলেটভিউ২৪ডটকম অফিসে।

তিনি বলেন, ‘যেসব শিক্ষার্থী আপনাদের কাছে অভিযোগ করেছেন তাদের কাছে কলেজ কর্তৃপক্ষের বকেয়া টাকা পাওনা রয়েছে। তাই তাদের কাছ থেকে বকেয়া টাকা নিচ্ছে।’

তবে অভিযোগকারি শিক্ষার্থীরা তাদের প্রিন্সিপালের এই বক্তব্যকে মিথ্যা দাবি করেছেন। তারা বলেছেন এটি ভাওতাবাজি।