• ১৬ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৩রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ৭ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

হার না মানা এক নেতা নাসির উদ্দিন খান

bijoy71news
প্রকাশিত এপ্রিল ২১, ২০২০

নুরুল হক শিপু ::
ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ; এরপর থেকে তাঁর ছুটে চলা। ক্লান্তিহীনভাবে চলছে এক উপজেলা থেকে অন্য উপজেলায় দৌঁড়ঝাঁপ। করোনা ভাইরাসে যখন বিপর্যন্ত জনজীবন, কঠিন এ সময়ে অসহায় মানুষ যাতে না খেয়ে না থাকেন; সেই চেষ্টাই অব্যাহত রেখেছেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন খান। বিভিন্ন উপজেলা ও থানা এমনকি ইউনিয়ন পর্যায়ে অসহায়, দিনমজুর মানুষ যাতে অনাহারে না থাকেন সেজন্য প্রশাসনসহ জনপ্রতিনিধিদের সাথে সমন্বয় করে দলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে কাজ করছেন তিনি।
ছাত্রলীগের রাজনীতি থেকে উঠে আসা অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন খানের হার না মানা এ পরিশ্রম যেমন দলীয় নেতাকর্মীদের কাছে দৃষ্টান্ত হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে; ঠিক তেমনি সাধারণ মানুষের কাছেও প্রসংসিত হচ্ছে।
দলের অধিকাংশ নেতাকর্মীরা যখন সিলেট মহানগরীতে কাজ করছেন; আবার অনেকেই ঘরে বসে আছেন, ঠিক তখন নাসির উদ্দিন খানের গ্রামগঞ্জে ছুটে মানুষের জন্য কাজ করা তাঁকে নিয়ে গেছে এক অনন্য উচ্চতায়।
ইতোমধ্যে জেলার বিভিন্ন উপজেলা ও থানায় তাঁর পা পড়েছে। সর্বশেষ মঙ্গলবার দিনভর গোলাপগঞ্জ উপজেলায় দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন এককালের তুখোড় এ ছাত্রনেতা।
সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক উপদপ্তর সম্পাদক ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জগলু চৌধুরী বলেন, ‘অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন খান ছাত্রলীগের সোনালী অর্জন। তিনি জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বে এসেছেন অল্পদিন হয়। নতুন এ সাধারণ সম্পাদক ব্যক্তি উদ্যোগেও অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। তিনি বিভিন্ন উপজেলা, পৌরসভা, থানা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের নেতাকর্মীদের ডাকে বিভিন্নস্থানে ছুটে যাচ্ছেন। মরনঘাতি করোনাকালে মানুষের জন্য তাঁর এ ছুটে চলা রীতিমতো দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করেছে। আগামী প্রজন্ম তাঁর এই কার্যক্রম থেকে শিক্ষা নিয়ে ভবিষ্যতে যে-কোনো দুর্যোগে কাজ করবে বলেও আশাপ্রকাশ করেন জগলু চৌধুরী।’
সিলেট মহানগর যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য, যুক্তরাজ্য কমিউনিটি নেতা এমদাদুর রহমান ফরহাদ বলেন, ‘নাসির উদ্দিন খান একজন কর্মীবান্ধব নেতা। বর্তমান এ সময়ে তিনি মানুষের জন্য কাজ করে কর্মীদের নতুন শিক্ষা দিচ্ছেন। তিনি জননেত্রী শেখ হাসিনার আদর্শ ধারণ ও লালন করে মানুষের রাজনীতি করেন-তা আর প্রমাণের অপেক্ষা রাখে না। কঠিন এ সময়ে যখন অনেক নেতা ঘরে বসে আছেন, নাসির উদ্দিন খান গ্রামে গ্রামে ছুটে গিয়ে শেখ হাসিনার নির্দেশ পালন করে প্রমাণ করছেন তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের নিবেদিত রাজনীতিবিদ।’
গোয়াইঘাট উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ ইব্রাহিম বলেন, ‘নাসির উদ্দিন খান পরিস্কার বলেছেন, যতোদিন দুর্যোগ কাটবে না, তিনি শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত মানুষের কল্যাণে কাজ করবেন। এটিই হলো মানুষের জন্য রাজনীতি, মানকসেবার রাজনীতি।’
সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শাহরিয়ার আলম সামাদ বলেন, ‘নাসির উদ্দিন খান আমার রাজনৈতিক অভিভাবক। নেতার কাজ, মানুষের জন্য ছুটে চলা, মানবদরদ, আমাদের অনুপ্রাণিত করে। নতুন দিনের পথ দেখায়।’